কোয়ারেনটাইন ৭ দিন নিয়ে বিসিবি’র সঙ্গে কথাই হয়নি: সিলভা

স্পোর্টস ডেস্ক

সবকিছু ঠিকঠাকই ছিল, বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য মঞ্চ প্রস্তুত ছিল। এমন সময়ে লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড থেকে জানানো হলো বাংলাদেশের জন্য কোয়ারেনটাইন সময় ১৪ দিন থেকে ৭ দিন করা সম্ভব নয়। আর এর সঙ্গে ছিল আরও নানান শর্ত। এমন সব কঠিন শর্ত মেনে শ্রীলঙ্কা সফর করা সম্ভব নয় বলে সাফ জানিয়ে দিলেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন। তবে এবার লঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান শাম্মি সিলভা জানালেন, বিসিবি'র সঙ্গে নাকি ৭ দিনের কোয়ারেনটাইন নিয়ে কোনো কথাই হয়নি শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের।

বিজ্ঞাপন

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের অবাঞ্চিত শর্ত মানতে নারাজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। আর এমন সব কঠিন শর্ত মেনে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে লঙ্কা সফরে না যাওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বাংলাদেশের এমন সিদ্ধান্তের পর শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে শর্তগুলো পুনরায় বিবেচনার জন্য পরামর্শ দেন দেশটির যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী নামাল রাজাপাকশে।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) আলোচনা শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ সম্মেলনে জানান, শ্রীলঙ্কা বোর্ড যেভাবে এই সিরিজ আয়োজন করতে চাইছে সেভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়।

বিজ্ঞাপন

প্রথমে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে শ্রীলঙ্কার বোর্ডকে জানানো হয় যে কোয়ারেনটাইনের সময় ১৪ দিন থেকে কমিয়ে যেন ৭ দিনে আনা হয়। এছাড়াও কোয়ারেনটাইনে থাকাকালীনও যেন ক্রিকেটাররা অনুশীলন করতে পারে। তবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে এর কোনোটিই সম্ভব নয়। দেশটির ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে জানিয়েছে কোয়ারেনটাইনের সময় ১৪ দিনই থাকবেন। এবং সেই সঙ্গে বিসিবি'র এইচপি টিমও যেতে পারবে না। আর কোয়ারেনটাইনে থাকা অবস্থায় টাইগার ক্রিকেটাররা অনুশীলনও করতে পারবেন না।

এমন অবস্থায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়ে দিয়েছেন, এভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়। পাপন জানান, 'শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড থেকে আমাদের জানিয়েছে সেখানে ১৪ দিনের কোরেনটাইনই ক্রিকেটারদের করতে হবে। এবং সেই সঙ্গে এই সময়ে তারা অনুশীলনও করতে পারবে না। আর এইচপি টিমও যেতে পারবে না। এমন অবস্থায় অনুশীলন না করে তো টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়। আমরা দলের সঙ্গে কোনো প্রকার বল থ্রোয়ার, নেট বোলার নিতে পারবে না, আবারও ওরাও দেবে না। তাহলে আমরা প্র্যাক্টিস করব কি করে?'

বিসিবি'র এমন তথ্য প্রকাশ করার পর কড়া জবাব দিয়েছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের চেয়ারম্যান শাম্মি সিলভা। শ্রীলঙ্কার আইল্যান্ড পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘তারা যদি এটা বলে থাকে, তবে সেটা ভুল। আমি আসলেই বুঝতে পারছি না কেন তারা এক সপ্তাহের কথা বলছে। সাতদিনের কোয়ারেনটাইনের বিষয়ে বিসিবি'র সঙ্গে আমাদের কোনো কথাই হয়নি।’ বিজ্ঞাপন

দেশের স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন ছাড়া কোয়ারেন্টাইনের সময় কোনোমতেই কমানো সম্ভব নয়, দৃঢ়তার সঙ্গে জানিয়েছেন শাম্মি সিলভা। তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য বিভাগের কথার বাইরে যাওয়া আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। এটা নিশ্চিত বাংলাদেশ দলকে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেনটাইনেই থাকতে হবে।’

লঙ্কান বোর্ড চেয়ারম্যান আরও যোগ করেন, ‘যদি তারা (বাংলাদেশ) শ্রীলঙ্কায় আসার আগে কোয়ারেনটাইন করেও আসে, তারপরও কলম্বোতে পা রাখার পর হোটেলে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেনটাইন পালন করতে হবে। আর তার সার্বিক খরচ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটই বহন করবে।’

আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর কলম্বোর উদ্দেশে ফ্লাইট ধরার কথা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। আর সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ছিল আগামী ২৪ অক্টোবর। বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

সর্বশেষ সংবাদ