লড়াই করে শ্রীলঙ্কার কাছে জিম্বাবুয়ের হার

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পঞ্চম ও শেষ দিন সকালে কাজটা এগিয়ে রেখেছিলেন সুরাঙ্গা লাকমালই। তুলে নেন টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে। তার পরেও শেষ দিনটা চোয়ালবদ্ধ মানসিকতায় লড়াইয়ের চেষ্টা করেছিল স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে। লাহিরু কুমারা দ্রুত লেজ ছেঁটে দেওয়ায় ভেঙে গেছে দলটির প্রতিরোধ! মাত্র ১৪ রানের ছোট লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১০ উইকেটে প্রথম টেস্ট জিতে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। হারারেতে সকালে খেলতে নেমে ওপেনার প্রিস মাসভাউরেকে (১৭) হারায় জিম্বাবুয়ে। ৮ রানের মাথায় বিদায় নেন আরেক ওপেনার মাদজিঙ্গানিয়ামা (১৬), তিন নম্বর ক্রেইগ আরভিনও (৭)। তিনটি উইকেটই নেন লাকমাল। এর পরেই প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টায় ছিলেন ব্রেন্ডন টেলর ও অধিনায়ক শন উইলিয়ামস। তারা আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতেই তখন খেলতে থাকেন। শ্রীলঙ্কান স্পিনার লাসিথ এম্বুলদেনিয়াকে বিশেষ করে লক্ষ্য বানাচ্ছিলেন। অথচ পঞ্চম দিনে তার মতো স্পিনারই হুমকি হয়ে ওঠার কথা! যিনি প্রথম ইনিংসে নিয়েছেন ৫ উইকেট! লঙ্কান এই স্পিনারকে পেটালেও পেসারদের বিপক্ষে এই জুটি ছিল নড়বড়ে। ফলে শ্রীলঙ্কান পেসার লাকমাল নিজের চতুর্থ শিকার বানান টেলরকে (৩৮)। পরে অধিনায়ক উইলিয়ামসকে (৩৯) বিদায় দিয়েছেন কাসুন রাজিথা। ৭ নম্বরে নেমে ১৪২ বলের ইনিংস খেলে ক্রিজে টিকে থাকার চেষ্টা করেছেন রেজিস চাকাভা। সিকান্দার রাজাকে সঙ্গে নিয়ে ১৭ ওভার টিকে লড়াই করার চেষ্টা করেছেন। সিকান্দার ১৭ রানে এম্বুলদেনিয়ার বলে ফিরলে চাকাভা এরপর আরও ২০ ওভার কাটিয়ে দেন ডোনাল্ড তিরিপানোর সঙ্গে! কিন্তু চা পানের বিরতির পর দ্বিতীয় নতুন বল আসায় এই প্রতিরোধ মিলিয়ে গেছে দ্রুতই। লেজ ছেঁটে দেন পেসার কুমারা। তিরিপানোকে ফেরান এলবিডাব্লিউতে, কাইল জার্ভিসের অফস্টাম্প উপড়ে ফেলার পর ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান আইনসলে এনডিলোভুকেও বিদায় দেন তিনি। তখনও অপরপ্রান্তে লড়াই চলছিল চাকাভার। এম্বুলদেনিয়া তাকে ফেরালে ১৮৬ মিনিট স্থায়ী ইনিংসটির সমাপ্তি হয়। ১৪২ বলে তার ব্যাট থেকে এসেছে ২৬ রান। পুরো ৯২ ওভার ব্যাট করেও দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে অলআউট ১৭০ রানে। টিকে থাকার মানসিকতায় স্কোরবোর্ড সমৃদ্ধ করতে পারেনি স্বাগতিকরা। আরও ৬০ রান করতে পারলে দিনে যত ওভার বাকি ছিল, তখন হয়তো ড্র সম্ভাব্য ফল হতে পারতো। দ্বিতীয় ইনিংসে লাকমাল ২৭ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। তিনটি লাহিরু কুমারার, দুটি নিয়েছেনি এম্বুলদেনিয়া। ১৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শ্রীলঙ্কান দুই ওপেনার ওশাডা ফার্নান্ডো (৪) ও দিমুথ করুনারত্নে (১০) মিলে ৩ ওভারে জয় নিশ্চিত করেছেন। সংক্ষিপ্ত স্কোর: জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ৩৫৮ (আরভিন ৮৫, কাসুজা ৬৩; ৫/১১৪ এম্বুলদেনিয়া, লাকমাল ৩/৫৩), দ্বিতীয় ইনিংস: ১৭০ (টেলর ৩৮, উইলিয়ামস ৩৯; লাকমাল ৪/২৭, কুমারা ৩/৩২) শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস: ৫১৫/৯ ডি. (ম্যাথুস ২০০*, কুসল মেন্ডিস ৮০; ৩/৬২ সিকান্দার রাজা, ৩/৬৯ নাউচি), দ্বিতীয় ইনিংস: ১৪/০ (ফার্নান্ডো ৪*, করুনারত্নে ১০*)  

সর্বশেষ সংবাদ